সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১২ অপরাহ্ন

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি :
সাপ্তাহিক চট্টবাণী পত্রিকায় চট্টগ্রাম মহানগর সহ বিভাগের আওতাধীন সকল জেলা ও উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা ছবিসহ বায়োডাটা ইমেইল করুন chattabani@gmail.com এই ঠিকানায়।
সংবাদ শিরোনাম :
নগরের সেবকরা আমার কাছে শ্রেষ্ঠ মানুষ : খোরশেদ আলম সুজন বারৈয়াঢালা ইউনিয়ন পরিষদে বীট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত সীতাকুণ্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় এস.আই মাহবুব নিহত পটিয়া উপজেলায় যুব রেড ক্রিসেন্ট-চট্টগ্রামের মৌলিক ও প্রাথমিক চিকিৎসা প্রশিক্ষণ সম্পন্ন ডাক্তারদের জনগনের সেবায় আত্ম-নিয়োগ করতে হবে : রেজাউল করিম চৌধুরী হাটহাজারী মাদ্রাসায় চিরনিদ্রায় শায়িত আল্লামা আহমদ শফী নারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে উদ্দ্যেক্তা হিসেবে গড়ে তোলা হবে: এম.রেজাউল করিম চৌধুরী আল্লামা শাহ আহমদ শফী’র ইন্তেকালে মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিমের শোক রাঙ্গুনিয়ায় আ. লীগ নেতার রহস্যজনক মৃত্যু, পরিবারের দাবী হত্যা এইচএসসি নিয়ে সিদ্ধান্ত আসছে ২৪ সেপ্টেম্বর

শিবির নেতাকে কমিটিতে আনতে চান জাফরুল




বিশেষ প্রতিবেদক: বাঁশখালী উপজেলা যুবদলের কমিটিতে আহবায়ক ও সদস্য সচিব পদে জামায়াতে ইসলামীর ছাত্র সংগঠন ছাত্র শিবিরের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত বিতর্কিত দুই নেতাকে আনার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন বাঁশখালীর সাবেক সংসদ সদস্য জাফরুল ইসলাম চৌধুরী। আর এ নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বিএনপির রাজনৈতিক অঙ্গনে জোর সমালোচনা।



গত ৭ সেপ্টেম্বর সোমবার রাতে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার আওতাধীন ১১টি ইউনিটে কমিটি ঘোষণা করে দক্ষিণ জেলা যুবদল। কিন্তু ঘেষিত কমিটির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে কমিটি স্থগিত করার নির্দেশ দেন জাফরুল ইসলাম চৌধুরী। এতে করে গত ৯ ই সেপ্টেম্বর উক্ত কমিটি স্থগিত করে যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটি।

স্থগিত কমিটি হওয়ার আগে থেকে জাফরুল ইসলাম জামায়াতের এ দুই নেতার নাম সুপারিশ করে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক ও সদস্য সচিব পদের জন্য। কিন্তু তাতে সে দুই জনের কারো স্থান হয়নি। যার কারণে স্থগিত কমিটির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে তার কার্যক্রম স্থগিত করার সুপারিশ করেন জাফরুল ইসলাম চৌধুরী।



সম্প্রতি স্থগিত হওয়া বাঁশখালী উপজেলা যুবদলের কমিটিতে শিবির কর্মী ও সরকার দলের সাথে আঁতাত করার অভিযোগে অভিযুক্ত শীলকূপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মহসিন আহবায়ক ও সদস্য সচিব পদে শিবিরের সক্রিয় কর্মী এডভোকেট আজিজুল হককে আনার জন্য আবারো তোড়জোড় শুরু করেছেন।

অন্যদিকে শীলকূপ ইউপি চেয়ারম্যান মহসিনকে বাঁশখালী উপজেলা যুবদলের আহবায়ক বানাতে বিএনপির হাইকমান্ডে জাফরুল তৎপরতা শুরু করেছেন। শিবিরের সাথে সম্পৃক্ততা ও ২০০৪ সালে অস্ত্রসহ গ্রেফতার হন মো. মহসিন। এ নিয়ে নানান আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে বাঁশখালী বিএনপির রাজনীতিতে। ২০১৭ সালে বিএনপির টিকেটে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মো. মহসিন। বিএনপির টিকেটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেও বর্তমানে সরকার দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে আঁতাত করে চলার অভিযোগ করেছেন নেতাকর্মীরা।

অপরদিকে বাঁশখালী যুবদলের সদস্য সচিব পদে সুপারিশ করা এডভোকেট আজিজুল হক জামায়াতের সক্রিয় কর্মী। জামায়াত নেতা শাহজাহান চৌধুরীর সাথে সখ্যতা রয়েছে তার। তিনি ২০১৭ সালে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে গিয়ে জামাতের সাথে গোপন আঁতাত করে গন্ডামারা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন। সম্প্রতি জামায়াত নেতা শাহজাহান চৌধুরীর সাথে আজিজুল হকের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে নানান আলোচনার সৃষ্টি হয়।



অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সাবেক মন্ত্রী ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ’এ বিষয়ে আপনি কেন আমার মন্তব্য জানতে চাইবেন? আমার মন্তব্য জানতে চাইবে আমার দলের মহাসচিব। আমার মন্তব্য জানতে চাইবে বিএনপির চেয়ারপারসন, যুবদলের সভাপতি- সাধারণ সম্পাদক। আপনি কেন চাইবেন? আপনি কি আমাকে কমিটি দিতে পারবেন? আমার অফিসে আসেন। চা খেয়ে যান। এ বিষয়ে বিস্তারিত কথা হবে।’ শীলকূপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহসিন বলেন, আমি সংগঠন বিরোধী কোনো কাজ করে থাকলে সে ব্যপারে সংগঠনের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কাছে লিখিত অভিযোগ দিলে সংগঠন সেটার বিচার করবে। বাইরে অপপ্রচার করে কোনো লাভ নেই। এ ব্যপারে জানতে এডভোকেট আজিজুল হককে মুঠোফোনে কল দিলে নাম্বার বন্ধ পাওয়া যাওয়া যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন...













>


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 
















© All rights reserved © 2019 Chattabani
Design & Developed BY N Host BD